বিশ্বব্যাপী মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রতিবাদে বিবিএসএস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সাইকেল র‌্যালী ও পথসভা

Spread the love

পাকিস্তানে জঙ্গীবাদ ও মানবাধিকার লঙ্ঘন এবং চীনের উইঘুরে মুসলমানদের উপর অমানবিক নির্যাতনসহ বিশ্বব্যাপী নির্বিচারে মানবাধিকার লঙ্ঘনের প্রতিবাদে এক সাইকেল র‌্যালী ও পথসভার কর্মসূচি বিবিএসএস ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের উদ্যোগে পালন করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস- ২০২১ উপলক্ষে আজ শুক্রবার (১০ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর শাহবাগে এই কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান তৌফিক আহমেদ তফছির। উক্ত কর্মসূচিতে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় অংশ নেন জাতীয় স্বেচ্ছাসেবক পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা এমদাদুল হক ছালেক, সিনিয়র সাংবাদিক ও বঙ্গবন্ধু গবেষক মুস্তাফিজুর রহমান, গাজী টিভির প্রযোজক শফিকুল ইসলাম, মাদার জান্নাত ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক এম, এম, আই সবুজ খান, জেলা পরিষদ সদস্য রায়হান ফারুকী, কালিয়া থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ওয়াহিদুজ্জামান হিরা, ইডাফ ফাউন্ডেশন ও মাদার জান্নাত ফাউন্ডেশনের কো-অর্ডিনেটর সুকৃতি কুমার মল্লিক প্রমুখ।
সভাপতির বক্তৃতায় তৌফিক আহমেদ তফছির বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আজ মানবাধিকার ভূলুন্ঠিত। এর মধ্যে চীনের উইঘুরে ও পাকিস্তানের বেলুচিস্তানে চরমভাবে মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে। চীনে বসবাসরত উইঘুর মুসলমানরা স্বাধীনভাবে তাঁদের ধর্ম পালন করতে পারছে না। তারা প্রতিনয়ত নির্যাতনের শিকার হচ্ছে। বিশ্বের গণমাধ্যম ওই সংবাদগুলো প্রকাশ করতে পারছে না, আমরা এসব ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। অন্যদিকে পাকিস্তানের বিভিন্ন স্থানে মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে। তাঁদের নির্যাতন ও অমানবিক ভাবে যন্ত্রনা দেয়া হচ্ছে। বিশেষ করে বেলুচিস্তানে এর মাত্রা অনেক বেশী। আমরা জাতিসংঘের মাধ্যমে তাঁদের নিরাপত্তার দাবি জানায়।
জান্নাতুল ফেরদৌস বলেন, বাংলাদেশসহ সমগ্র বিশ্বেই বিশেষ করে নারী ও শিশুদের মানবাধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে সবচেয়ে বেশি। তিনি বলেন, এখনও অনেক মানুষ ফুটপাথে ঘুমায়। আমরা চায় আর একজন মানুষও যেন রাস্তায় না থাকে। কেননা- অন্ন, বস্ত্র, চিকিৎসা, শিক্ষা ও বাসস্থান হলো প্রতিটি মানুষের মৌলিক অধিকার। আর এসব নিশ্চিত করা প্রতিটি সরকারের কর্তব্য।
প্রসঙ্গত মানবাধিকার সুরক্ষা ও উন্নয়নের লক্ষ্যে ১৯৪৮ সালের ১০ ডিসেম্বর জাতিসংঘ কর্তৃক মানবাধিকারের সর্বজনীন ঘোষণাপত্র গৃহীত হয়। এরপর থেকে প্রতি বছর মানবাধিকার বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ডিসেম্বরের ১০ তারিখে বিশ্বব্যাপী মানবাধিকার দিবস পালিত হয়ে আসছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাংলাদেশেও ‘আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস’ উদযাপন করা হচ্ছে। দিসবটির এবারের প্রতিপাদ্য- ÔRecover Better-Stand Up for Human RightsÕ’ অর্থাৎ ‘ঘুরে দাঁড়াবো আবার, সবার জন্য মানবাধিকার’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *